ইতিহাস গড়ে সেরা খেলোয়াড়ের পুরষ্কার গোলরক্ষকের হাতে

0
23

শ্বাসরুদ্ধকর ফাইনালে ইংল্যান্ডকে টাইব্রেকে ৩-২ গোলে হারিয়ে ইউরো চ্যাম্পিয়ন হয়েছে ইতালি। আর অপরাজিত থেকে ইতালির ইউরো জয়ের অন্যতম নায়ক জিয়ানলুইগি ডনারুমা।

টাইব্রেকারে ইতালিকে ইউরোপ সেরার মুকুট এনে দেওয়ায় টুর্নামেন্টের ইতিহাসে এবারই প্রথম কোনো গোলরক্ষকের হাতে উঠলো সেরা খেলোয়াড়ের পুরস্কার। আর টুর্নামেন্টে সর্বোচ্চ গোলদাতার পুরস্কার গোল্ডেন বুট জিতেছেন ক্রিস্টিয়ানো রোনালদো।

পুরো টুর্নামেন্ট জুড়ে দুর্দান্ত পারফর্ম করেছেন ডনারুমা। ফাইনালে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে টাইব্রেকারে দুটি পেনাল্টি শট রুখে দিয়ে হোম থেকে রোমে নিয়ে গেছেন এবারের ইউরো। পাশাপাশি ৫৩ বছর পর ইউরোপ সেরার মুকুট পুনরুদ্ধার করল ইতালি। শুধু যে পেনাল্টি ঠেকিয়েই সেরার মুকুট জিতেছেন এমনটাই নয়, টাইব্রেকারে প্রথম শটে গোলও করেছেন তিনি!

কেবল ফাইনালেই নয়, সেমিফাইনালে আজ্জুরিদের জয়ের নায়কও ছিলেন ডনারুমাই। ২২ বছর বয়সী এই গোলরক্ষক স্পেনের বিপক্ষেও নিজের সেরাটি দিয়ে দলকে টাইব্রেকারে নিয়ে জয় এনে দিয়েছিলেন। গোটা টুর্নামেন্ট জুড়ে মাত্র চারটি গোল হজম করেছেন ডনারুমা।

অন্যদিকে, গ্রুপ পর্বে অসাধারণ নৈপুণ্য দেখিয়ে ৫ গোল করে গোল্ডেন বুট জিতেছেন পর্তুগীজ তারকা ক্রিস্টিয়ানো রোনালদো।

টুর্নামেন্টে রোনালদোর সমান ৫ গোল করেন চেক প্রজাতন্ত্রের প্যাট্রিক চেকও। তবে রোনালদো এগিয়েছেন অ্যাসিস্ট করার কারণে। রোনালদোর নামের পাশে একটি অ্যাসিস্টও থাকলেও শিকর নামের পাশে কোনো অ্যাসিস্ট নেই।

এবারের ইউরোতে ৪ গোল করেছেন ফ্রান্সের করিম বেনজেমা, বেলজিয়ামের রোমেলো লুকাকু, ডেনমার্কের এমিল ফোর্সবার্গও। আর তিন গোল করে আসে আরও পাঁচজনের পা থেকে।

এর আগে, ইউরোর শ্বাসরুদ্ধকর ফাইনালে ইংল্যান্ডকে টাইব্রেকে হারায় আজ্জুরিরা। ৩৪ ম্যাচ অপরাজিত মানিচিনি শিষ্যরা। নির্ধারিত সময়ের খেলা ১-১ গোলে ড্র হলে খেলা গড়ায় ট্রাইবেকারে। এতেই ৩-২ গোলে জয় তুলে নেয় ইতালি।

LEAVE A REPLY